সাতক্ষীরা থেকে বিদেশে রপ্তানি শুরু হয়েছে হিমসাগর আম।

নিউজ ডেক্স: গোবিন্দভোগের পর এবার সাতক্ষীরা থেকে রপ্তানি শুরু হয়েছে হিমসাগর আম।

মাটি ও আবহাওয়াজনিত কারণে সাতক্ষীরার আম আগে পাকায় এবং স্বাদে, গুণে ও মানে অনন্য হওয়ায় বরাবরের মতো এবারও আগে ভাগেই ইউরোপে যাচ্ছে সাতক্ষীরার হিমসাগর।

গত মৌসুমে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের কারণে রপ্তানি বিঘিœত হলেও কৃষি বিভাগের প্রচেষ্টায় এবং বেসরকারি সংস্থা উত্তরণ ও সলিডারিডাড নেটওয়ার্ক এশিয়ার সফল প্রকল্পের সহযোগিতায় চলতি মৌসুমে ৮ মে থেকে গোবিন্দভোগ পাঠানোর মাধ্যমে বিদেশে আম রপ্তানি কার্যক্রম শুরু হয়।

এরপর নির্ধারিত সময় অনুযায়ী শুক্রবার (২১ মে) থেকে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার মাধবকাটির হাফিজুর রহমানের বাগান থেকে রপ্তানি শুরু হয় হিমসাগর আম।

সকালে এই রপ্তানি কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল।

এসময় নিরাপদ আম উৎপাদন ও বাজারজাতকরণে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক নূরুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুবায়ের হোসেন চৌধুরী, জেলা বিপণন কর্মকর্তা সালেহ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, উপজেলা কৃষি অফিসার রফিকুল ইসলাম, উত্তরণ পরিচালক শহিদুল ইসলাম, সফল প্রকল্পের ম্যানেজার ইকবাল হোসেন, সলিডারিডাড নেটওয়ার্ক এশিয়া’র প্রোগ্রাম অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান প্রমূখ।

সাতক্ষীরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক নুরুল ইসলাম জানায়, প্রথম দিনেই এনএইচবি কর্পোরেশন ও তাশফিক ইন্টারন্যাশনালের মাধ্যমে ৪ টন হিমসাগর আম ইতালির রোমে যাচ্ছে। পর্যায়ক্রমে আরও ল্যাংড়া ও আম্রপালি আমও রপ্তানি হবে।

প্রসঙ্গত, চলতি মৌসুমে সাতক্ষীরার মুম্বাই, গোবিন্দভোগ, গোপালভোগসহ আগামজাত আম ১ মে, হিমসাগর আম ২১ মে ও ল্যাংড়া আম ১ জুন থেকে হার্ভেস্টিংয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের চেয়ে অন্তত ১৫ দিন আগে হার্ভেস্টিংয়ের সুবিধা থাকায় সাতক্ষীরার আম রপ্তানিতে বিশেষ গুরুত্ব পায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.