সাতক্ষীরায় পরকীয়ার জেরে খুন,আসামীর স্বীকারোক্তি ।

সাতক্ষীরায় পরকীয়ার জেরে খুন,আসামীর স্বীকারোক্তি ।

রাজু রায়হান, স্টাফ রিপোর্টার;

আমার গ্রামের জলিলের স্ত্রী ময়নার সাথে আমার নিজের ও আলমগীরের পরকীয়ার সম্পর্ক থাকায় বিরোধের জেরে আমি একাই আলমগীরকে হত্যা করেছি’ পুলিশের কাছে এই স্বীকারোক্তি প্রদান করেছে আসামি ইস্রাফিল হোসেন (২৫)।শুক্রবার ভোরে দিনমজুর আলমগীর হোসেন(২২) কে খুন করা হয়েছিল।

রোববার দুপুরে সাতক্ষীরা সদর থানায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে এসব বিষয় তুলে ধরেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ সজীব খান। তিনি বলেন, এ ঘটনায় ইস্রাফিলকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয়, পশ্চিম বকচরা গ্রামের আলমগীর হোসেন একজন দিনমজুর। তার সাথে পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল বালিয়াডাঙা গ্রামের ইটভাটা শ্রমিক আব্দুল জলিলের স্ত্রী ময়না খাতুনের। একইসঙ্গে ওই নারীর সাথে দ্বিতীয় পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে ইস্রাফিল হোসেন। এ নিয়ে তাদের পারিবারিক বিরোধও হয়। স্থানীয়ভাবে শালিসবিচারও হয়। বন্ধুত্বের সম্পর্ক থাকলেও আলমগীরের সাথে ইস্রাফিলের দূরত্ব সৃষ্টি হয় গৃহবধূ ময়নাকে নিয়ে। এরই জেরে ইস্রাফিল গত বৃহস্পতিবার রাতে তাকে বাড়ি থেকে কৌশলে ডেকে এনে বকচরা বিলের মধ্যে একটি ঘেরে ডিশলাইনের তার গলায় পেঁচিয়ে আলমগীরকে হত্যা করে।

ইস্রাফিলের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পুলিশ আলমগীরের ব্যবহৃত টর্চলাইট ও মোবাইলও জব্দ করেছে।
প্রেস ব্রিফিংয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সজীব খান,
সদর সার্কেল এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শামসুজ্জামান শামস এবং সদর থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন সহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.