ড্রোন দিয়ে বৃষ্টি নামাবে আমিরাত

প্রযুক্তি ডেস্কঃ

মরুভূমির দেশগুলোতে বৃষ্টিপাত খুবই কম হয়। সবচেয়ে কম বৃষ্টি হওয়া অঞ্চগুলোর মধ্যে মধ্যপ্রাচ্য তালিকার উপরের দিকেই রয়েছে। তবে এ সমস্যার সমাধানে বিশেষ ড্রোনকে ব্যবহার করবে প্রযুক্তিবিদরা।

কৃত্রিম উপায়ে বৃষ্টি নামানোর এ পদ্ধতি উদ্ভাবন করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। বিশেষভাবে তৈরি বেশ কিছু ড্রোন উড়ে যাবে মেঘগুচ্ছের কাছে। এর পর সেখানে ড্রোন থেকে বৈদ্যুতিক শক বা তাপ দেয়া হবে। যাতে মেঘ গলে যায় আর তা থেকে ফোঁটায় ফোঁটায় পানি পড়ে বৃষ্টির সৃষ্টি হয়। এরই মধ্যে ক্লাউড সিডিং প্রযুক্তিরও ব্যবহার করেছে তারা।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে বছরে সাধারণত ১০০ মিলি মিটার পরিমাণ বৃষ্টি হয়। সার্বিক বিচারে দেশটিতে প্রয়োজনের তুলনায় এটি খুবই কম। তাই তারা ২০১৭ সালে ১৫ মিলিয়ন ডলার খরচ করে পৃথক কয়েকটি বৃষ্টি বর্ধন প্রকল্পের কাজ হাতে নিয়েছিল। এর মধ্যে একটি প্রকল্পের নেতৃত্ব দিচ্ছেন রিডিং ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞানীরা। প্রকল্পটির লক্ষ্য হচ্ছে মেঘের ফোঁটাগুলোতে বৈদ্যুতিক তাপের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণ করা।

আরব আমিরাতের বৃষ্টি বর্ধন বিজ্ঞান গবেষণা কর্মসূচির পরিচালক আলেয়া আল-মাজরোই গণমাধ্যমকে জানান, বৈদ্যুতিক চার্জ নির্গমন যন্ত্র এবং কাস্টমাইজড সেন্সরগ সজ্জিত ড্রোন তুলনামূলক কম উচ্চতায় (মেঘের কাছে) উড়ে যাবে এবং বৈদ্যুতিক চার্জের মাধ্যমে বাতাসে অণু ছড়াবে, যা মেঘে উত্তাপ সৃষ্টির মাধ্যমে গলিয়ে ফেলবে এবং বৃষ্টিপাত ঘটাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.