কলারোয়ার লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে আলোচনার র্শীষে শওকত আলী

কলারোয়ার লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে আলোচনার র্শীষে শওকত আলী

রাজু রায়হান:

সাতক্ষীরা কলারোয়া উপজেলার ৪নং লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হিসাবে নির্বাচনকে ঘিরে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনা এবং আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে সাবেক মেম্বার শওকত আলীকে নিয়ে। এবারের নির্বাচনে ৬নং ওয়ার্ডের বেশিরভাগ মানুষ ওনাকেই চাইতে ছেন।

এই ওয়ার্ড থেকে যে সমস্ত প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে তার মধ্যে অন্যতম সমাজ সেবক, সৎ যোগ্য, অসহায়, নিপীড়িত, নির্যাতিত যাকে সব সময় পাশে পেয়েছেন এবং সার্বিকভাবে অসহায়, ক্ষতিগ্রস্ত, অবহেলিত মানুষের পাশে থেকে সহযোগিতা করেছেন সেই সাবেক মেম্বার শওকত আলী রয়েছেন আলোচনার শীর্ষ অবস্থানে।

অন্যান্য প্রার্থীরাও বিগত দিনে নির্বাচনে অংশ নিয়ে নির্বাচিত হলেও বর্তমান সময় অনুযায়ী সাবেক শওকত আলী ভোটারদের মন জয় করতে সক্ষম হয়েছেন। অসহায় অবহেলিত মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠাত এবং ভক্ষক নয় মানব সেবার মূলনীতি এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হতে সকলের দ্বারে দ্বারে ভোট প্রার্থনা করে যাচ্ছেন।

৬নং ওয়ার্ডের ভোটারদের কথা যে প্রার্থী দুর্দিনে বিপদে-আপদে সবসময় আমাদের পাশে থেকে সহযোগিতা করেছেন এবং সুখে-দুখে যাকে না ডাকতেই আমরা পাশে পাই, বা সংবাদ না দিতেই ছুটে আসে এবং আমাদেরকে নিরলস ভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন তাকে আগামী দিন আমাদের মূল্যবান ভোট প্রয়োগ করে নিজেদের ওয়ার্ডের অভিভাবক নির্বাচিত করব।

সেদিক থেকে সমাজ সেবক,সৎ, যোগ্য ও সময়োপযোগী প্রার্থী হিসেবে সাবেক মেম্বার শওকত আলী বিকল্প নেই বলে একাধিক ভোটারদের অভিমত। ইতিমধ্যে বিভিন্ন চায়ের দোকান, পাড়ায় পাড়ায়, মহল্লায় মহল্লায়, অলিতে গলিতে, হাটে বাজারে, মাঠে ময়দানে, রাজপথে, শওকত আলীর বিজয় সুনিশ্চিত বলে ভোটাররা অভিমত ব্যক্ত করে চলেছেন।

এই ওয়ার্ডের জনপ্রতিনিধি শওকত আলী ব্যক্তি ইমেজ ভোটারদের কাছে অনেকটাই প্রাধান্য পেয়েছে। তাই সকল বিষয় মাথায় রেখে শওকত আলীকে বিজয়ের লক্ষ্যে ভোটাররা উদ্বুদ্ধ হয়ে উঠেছে।

এ বিষয়ে সাবেক মেম্বার শওকত আলীর সাথে কথা বললে তিনি জানান ওয়ার্ড বাসীর কাছে দোয়া ও আশীর্বাদ ছাড়া আমার চাওয়ার কিছু নেই। ২০শে সেপ্টেম্বর সারাদিন ফুটবল প্রতীকে ভোট দেওয়া জন্য ওয়ার্ড বাসীদের আহবান করেন।

তিনি আরো বলেন নির্বাচিত হইবা না হই এভাবেই যেন জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত সুখে, দুখে, অসহায়, অবহেলিত, নিপীড়িত, নির্যাতিত, বঞ্চিত, ওয়ার্ডবাসীর পাশে থেকে সেবা করে যেতে পারি এই সুযোগ টুকুই যেন ওয়ার্ডবাসী আমাকে দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.